রাজশাহী পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট

অর্থনৈতিক ও টেকসই উন্নয়নের জন্য ভৌত অবকাঠামো নির্মাণ ও রক্ষনাবেক্ষন করতে মাঠ পর্যায়ে যারা ব্যাপক কর্মকান্ডে সক্রিয়ভাবে অবদান রাখেন, তারাই সিভিল ইঞ্জিনিয়ার।
পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটটে সিভিল টেকনোলজিতে অধ্যয়নকালীন সময়ে দালানকোঠা, সড়ক, জনপথ, ব্রীজ, কালভার্ট, হাইড্রলিক, স্ট্রাকচার, স্যানিটেশন, পানি সরবরাহ ইত্যাদির জরিপ কাজ নির্মাণ কৌশল ও রক্ষনাবেক্ষন সম্পর্কে তাত্ত্বিক ও ব্যবহারিক জ্ঞান অর্জন করে। এছাড়াও উক্ত অবকাঠামোগুলোর ড্রয়িং সহ প্রাক্কলিত ব্যয় নিরুপন করতে যথেষ্ঠ শিক্ষা দান করা। পলিটেকনিক ডিপ্লোমাদের শিক্ষা সমাপনান্তে বিভিন্ন সরকারি ও আধাসরকারি প্রতিষ্ঠান যেমন স্থানীয় সরকার ও প্রকৌশল ব্যুরো, সড়ক ও জনপথ, গণপূর্ত, বাংলাদেশ রেলওয়ে, পানি উন্নয়ন বোর্ড, শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর, বাংলাদেশ ব্যাংক ইত্যাদিতে উপসহকারী প্রকৌশলী হিসেবে চাকুরীর সুযোগ রয়েছে এবং বিভিন্ন বেসরকারী প্রতিষ্ঠান যেমন কন্সট্রাক্শন ফার্ম, কনসালটেন্টন ফার্ম ও রিয়েল এস্টেট কোম্পানীতে কর্মস্থানের সুযোগ রয়েছে। বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে অভিজ্ঞতা অর্জনের মাধ্যমে নিজ উদ্দ্যোগে ফার্ম দিয়ে আর ও নতুন কর্মসংস্থানের সুযোগ করে দেশের উন্নয়ন কর্মকান্ডে অংশীদার হতে পারে। সিভিল টেকনোলজীর কোর্স সম্পন্ন করে উচ্চ শিক্ষার জন্য দেশে এবং বিদেশে ভর্তির যথেষ্ঠ সুযোগ রয়েছে। দেশে ডিপ্লোমা প্রকৌশলীদের বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ার জন্য ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (ডুয়েট) এবং বেসরকারী পর্যায়ের অনেক বিশ্ববিদ্যালয় রয়েছে।